FeaturedGoogleNewsUncategorized

A hidden Internet world is Mariana Web. Learn about the mysterious and dark Internet world

একটি রহস্যময় ইন্টারনেট জগত হলো মারিয়ানা ওয়েব।এ রহস্যময় ও অন্ধকার ইন্টারনেট জগত সম্পর্কে জানুন

 

 

অনেকেই হয়ত মারিয়ানা’স ওয়েব এর নাম শুনেছেন; আবার অনেকে হয়ত শুনেন নি। মারিয়ানা’স ওয়েব আসলে কি? আমরা কি মারিয়ানা’স ওয়েব সার্ফ করতে পারব? মারিয়ানা’স ওয়েব সার্ফ বা ব্রাউজ করা কী বৈধ? আজ আমরা আলোচনা করব এই মারিয়ানা’স ওয়েব নিয়ে। আশা করি আজকের আর্টিকেল আপনার ভালো লাগবে; মনোযোগ সহকারে পড়বেন।

অন্যান্য ওয়েব:

এর আগের একটি আর্টিকেলে আমি সারফেস ওয়েব,ডীপ ওয়েব ও ডার্ক ওয়েব সম্পর্কে বলেছি। সারফেস ওয়েব হল আমরা গুগলে সার্চ করে সামনে যা পাই তা; এবং সচরাচর আমাদের চোখে পড়া ওয়েবসাইটগুলো এর অংশ। ডীপ ওয়েব হল প্রতিটি ওয়েবসাইট এর ডাটাবেস-সিপেনেল এসব; ডীপ ওয়েব আপনি তখনই ব্রাউজ করতে পারবেন যখন এর এক্সেস আপনার কাছে থাকবে; আর এটি গুগলে ইনডেক্স হয় না। আর একটি নির্দিষ্ট এক্সেস দিয়েই আপনি কেবলমাত্র ঐ ওয়েব সাইটে ঢুকতে পারবেন।আর এটি গুগলে ইনডেক্স হয় না। আর এখানে সবরকম অবৈধ কার্যকলাপ হয়। এখানে যেকেউ খুনী ভাড়া করতে পারে; মাদক এর পাচার /কেনাবেচা করতে পারে। এখানে অবৈধ পর্নোগ্রাফী মানুষের বিভিন্ন অঙ্গ বিক্রি করা ইত্যাদি অবৈধ কাজ এখানে করা হয়।

A hidden Internet world is Mariana Web. Learn about the mysterious and dark Internet world mqdefault 300x169

মারিয়ানা’স ওয়েবঃ

এখন যদি বলা হয় এই ডার্ক ওয়েব এর চাইতেও গভীর একটি ওয়েব রয়েছে; আর তখনই তা ব্রাউজ করা যাবে যখন;সেই ওয়েবসাইট এর এড্রেস আপনার কাছে থাকবে আরও থাকতে হবে সেই ওয়েবসাইটে ঢোকার চাবি। মারিয়ানা’স ওয়েব এতই গভীর যে এখানে ঢোকা সহজ কোন ব্যাপার নয়; খুবই কঠিন একটি প্রক্রিয়া। যেকেউ চাইলে প্রবেশ করতে পারবে না এই ইন্টারনেটের অন্ধকার জগতে।

এই মারিয়ানা নামটি এসেছে মানিয়ানা ট্রেঞ্জ থেকে। এই মারিয়ানা ট্রেঞ্জ হল প্রশান্ত মহাসাগর এর সবচেয়ে গভীর তম স্হান [গভীরতা প্রায় ১১ কি.মি]। এটি সমুদ্রের এমন একটি স্হান যা পুরো পৃথিবীর সবচাইতে গভীরতম স্হান। এই নাম থেকেই এর নাম হয়েছে মারিয়ানা’স ওয়েব।

তো সরকার কী জন্য এই ওয়েবের বিরুদ্ধে কিছু করছে না? কেন এটাকে প্রকাশ করা হচ্ছে না? এখনে সরকার  এই জন্য এটি করেনা কেননা;অনেক দেশের সিক্রেট অনেক তথ্য এই মারিয়ানা’স ওয়েবে আছে;এমনকি তাদেরও থাকতে পারে। মারিয়ানা’স ওয়েবে Human Experiments ও হয়ে থাকে; এবং তার ডাটাবেসও সেভ করা হয় এখানে।

কয়েক বছর আগের কথা; একজন ওয়েব ডেভেলপার ছিল যেকিনা ফ্রিল্যান্স কাজ করত। অর্থাত তাকে কেউ টাকা দিত সে তার বিনিময়ে ওয়েবসাইট ডিজাইন করে দিত। এভাবে ওই ব্যক্তিকে একজন unknown লোক যার নাম 450w [হয়ত তার কোডনাম] ছিল; reddit নামের ইন্টারনেট ফোরামে ভাড়া করল। ওয়েব ডেভেলপার জানত না যে এই লোকটি কে।কিন্তু সেই unknown লোকটি তাকে অনেক বেশী প্রাইজ অফার করল;খুবই সাধারন একটা কাজ করার জন্য।

সে বলেছিল আমি আপনার থেকে নরমাল ওয়েবসাইট আমার সার্ভারে ডিজাইন করে নিব; এর বিনিময়ে আপনাকে সপ্তাহে ৫০ হাজার ডলার দেব। তখন ওই ওয়েব ডেভেলপার এর মনে হল কোন স্ক্যাম বা এইরকম কিছু হবে হয়তবা;কিন্তু তার টাকার দরকার ছিলো তাই সে অর্ডারটি নিয়ে নিল। তারপর সেই ওয়েব ডেভেলপার দিয়ে পার্সোনল প্রাইভেট কোন সার্ভারে কাজ করানো হল;সাধারন একটি ওয়েবসাইট ডিজাইন করানো হল। শুধু ডিজাইন করিয়ে নেয়া হল কোনো কনটেন্ট দেয়া হল। এভাবে কাজ চলতে থাকল ৯ সপ্তাহ সেই ডেভেলপার কাজ করেছিল।

A hidden Internet world is Mariana Web. Learn about the mysterious and dark Internet world deep web 1292333 1280 300x226

তার মনে ইচ্ছা জাগল যে সে কোন সার্ভারে কাজ করছে। তার কাছে শুধু একটি নির্দিষ্ট এলাকার এক্সেস ছিল তাই সে অন্য সব বুঝতে পারছিল না। তবে সে কিছু ফাইল ডাউনলোড করল ঐ সর্ভার থেকে; কিছু ভিডিও ক্লিপ। এই ভিডিও ক্লিপটি নিচে দেয়া হল। এখানে আপনি আজব আজব কিছু ক্লিপ দেখতে পারবেন। আপনার মন দূর্বল হলে ভিডিও দেখা থেকে বিরত থাকতে পারেন। একটি ক্লিপে কিছু বাইনারি কোড নির্দেশ করছিলো; ধারনা করতে পাচ্ছেন মারিয়ানা’স ওয়েব কেমন এবং; ভয়ংকর একটি জায়গা তার বলতে আর কোন সন্দেহ থাকে না।এখানে সাধারন কোন এথিক্যাল বা হোয়াইট হ্যাট হ্যাকারের কোন স্হান নেই। একজন সাধারন মানুষের মারিয়ানা’স ওয়েবে বেশি ঘাটাঘাটি বা ঢোকার চেষ্টা না করা; এসবের ভেতর না যাওয়াই ভালো।

আর এখানে আপনার প্রয়োজনীয় কিছু নেই । আর এসব কারনে কেউ মারিয়ানা’স ওয়েব তথ্য প্রকাশ করে না। গর্ভমেন্ট কোন পদক্ষেপ কোন পদক্ষেপ নেয়না; আগেই বলেছি তাদেরও অনেক গোপন তথ্য এখানে বিদ্যমান। বড় থেকে বড় হ্যাকারও এই মারিয়ানা’স ওয়েব নিয়ে কিছু করার আগে অনেকবার ভাববে। এটি ইন্টারনেটের একটি কোনা যেখানে বিনা ঠিকানা, বিনা চাবিতে ঢোকা বলতে অসম্ভব এটি বিষয়।

এটাও মানা হয় যে, মারিয়ানা’স ওয়েবে ঢুকতে তা দখল করতে কোয়ান্টাম কম্পিউটারস এর প্রয়োজন হবে।কোয়ান্টাম কম্পিউটারকে সুপার কম্পিউটারও বলা যেতে পারে; এদের প্রোসেসিং স্পীড আমাদের সাধারন কম্পিউটার থেকে কয়েক হাজার গুণ বেশী হবে। [মানা হয় মাত্র ৪টি কোয়ান্টাম কম্পিউটার দিয়ে সম্পূর্ণ আমেরিকার Computer দরকরী সব পূরন করা সম্ভব! ]

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close
Skip to toolbar